আল্লামা খলীলুর রহমান হামিদী (রহঃ) এর ইন্তেকালে গোলাপগঞ্জ উলামা কাউন্সিল ইউকে এর শোক প্রকাশ

আল্লামা খলীলুর রহমান হামিদী (রহঃ) এর ইন্তেকালে গোলাপগঞ্জ উলামা কাউন্সিল ইউকে এর শোক প্রকাশ


                      
                               বাংলাভাষী ডেস্ক 

 আন্জুমানে হেফাজতে ইসলামের আমির, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাকের) সহ-সভাপতি, জামিয়া লুৎফিয়া আনোয়ারুল উলূম বরুণার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী (পীর সাহেব বরুণা) এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছে গোলাপ গঞ্জ উলামা কাউন্সিল ইউকে। এক শোকবার্তায় উলামা কাউন্সিল ইউকের সভাপতি মাওলানা সাদিকুর রহমান, সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা শওকত আলি, হাফিজ মাওলানা হোসাইন আহমদ, মাওলানা ময়নুল ইসলাম,মাওলানা আব্দুল মজিদ,সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা আতাউর রহমাদ জাকির, সহঃ সেক্রেটারী সাইফুর রহমান সাবিল, মাওলানা জয়নাল আবেদীন, ট্রেজারার মাওলানা আব্দুল খালিক শাহেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নাসির উদ্দিন, সহঃ সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ মাওলানা মাহমুদুল হাসান,সহ প্রচার সম্পাদক হাফিজ মাওলানা ইমদাদুর রহমান এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন খলীফায়ে মাদানী শায়খ লুৎফর রহমান বর্ণভী (রহ.) এর সুযোগ্য বড় সাহেবজাদা আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী ছিলেন ইসলামের যথার্থ জ্ঞানের অধিকারী একজন দ্বায়ী ইলাল্লাহ। একজন খ্যাতিমান ইসলামী পণ্ডিত ও যুগের নকীব। আজীবন তিনি  দেশ-বিদেশে দাওয়াতি কাজ ইন্তেজামে নিরলস ভাবে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। ইকামাতে দ্বীনের কাজ তথা মানুষকে আল্লাহর নির্দেশিত পথের দিকে আহবান জানিয়েছেন এবং জাহেলিয়াতের ঘোর অমানিশা থেকে রক্ষার জন্য চেষ্টা করেছেন। দ্বীনের প্রচার বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে দিয়েছেন। ইলমের মাধ্যমে মানুষের বা সমাজের উপকার করা এবং দ্বীনের বুনিয়াদী শিক্ষাকে ঘরে ঘরে পৌঁছাবার কাজ করেছেন। জ্ঞান অর্জন করার সাথে সাথে কীভাবে উত্তম চরিত্র-আখলাক অর্জন করা যায়, তার জন্য সবাইকে উৎসাহিত করেছেন। উনার ইন্তেকালে সমাজ ও জাতির যে ক্ষতি হয়েছে তা কখন ও পূরণ হবার নয়।  আল্লাহ সুবহানাহু ওতায়ালা যেন হযরতের মানবীয় ভুল ক্ষমা করে জন্নাতুল ফিরদাউস নসীব করেন পরিবার, আত্নীয় স্বজন ও ভক্ত অনুরাগীদেরকে সবর করার তাওফিক দেন ।