ধর্ষক ও নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে  গণ প্রতিরোধ গড়ে তুলুন 

ধর্ষক ও নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে  গণ প্রতিরোধ গড়ে তুলুন 

ধর্ষক ও নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে 
গণ প্রতিরোধ গড়ে তুলুন 


বাাংলাভাষীডেস্ক  

ধর্ষক ও নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে দেশব্যাপী  গণ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানিয়েছে বিবৃতি দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নেতা ও 
মানবাধিকার সংগঠন রাইটস মুভমেন্ট ইউকে’র আহবায়ক 
আব্দুল কাদির সালেহ, যুগ্ম আহবায়ক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সিনেট সদস্য নসরুল্লাহ খান জুনায়েদ, সহ আহবায়ক ও সিনিয়র সাংবাদিক শামসুল আলম লিটন ।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন আমরা আজ হতবাক , আমরা লজ্জিত । বাংলাদেশে যেভাবে ধর্ষন ও নারীর প্রতি সহিংসতা বৃদ্ধি পেয়েছে তা বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অস্তিত্বকেই অসাড় করে তুলেছে । প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন অন্চলে দলবদ্ধ গ্যাঙ রেইপের ঘটনা ঘটছে । সিলেট এমসি কলেজে স্বামীকে আটকে রেখে দলবদ্ধভাব নব বধুকে ধর্ষনের রেশ  কাটতে না কাটতেই আজ মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া নোয়াখালির বেগমগন্জে 
একজন নারীকে কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও ধারন করে মিডিয়ায় ছেড়ে দিয়েছে । এই অসহায় নারীর নিজের সম্ভ্রম রক্ষার আকুল আর্তনাদ আমাদের হৃদয়তন্ত্রীকে নাড়িয়ে দিয়েছে । 

নেতৃবৃন্দ বলেন , প্রতিটি ঘটনার পেছনেই ক্ষমতাসীন দলের লোকদের সংশ্লিষ্ঠতা পাওয়া যাচ্ছে । ক্ষমতার দাপটে এক এক এলাকায় তারা দুর্ধর্ষ গ্যাঙ বাহিনী গড়ে তোলে চাঁদাবাজি ধর্ষন জমিদখল, সন্ত্রাস ও খুন সহ নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে ।
আজ পর্যন্ত কোন ধর্ষকের দৃষ্ঠান্তমূলক কোন শাস্তি হয়নি । এর চেয়ে উদ্বেগ ও লজ্জার বিষয় আর কী হতে পারে ? 

নেতৃবৃন্দ বলেন , এই সরকার জনগনের জান মালের নিরাপত্তা দেয়ার পরিবর্তে খুন গুম অপহরন সহ ধর্ষকদের আশ্রয় ও আশকারা দিয়ে ক্ষমতায় টিতে থাকতে চাইছে । যেদেশে নারীর সম্ভ্রম প্রতিনিয়ত লুন্ঠিত হলেও সরকার নির্বিকার থাকে সেই দেশে এদের বিরুদ্ধে ব্যাপক গণ প্রতিরোধ গড়ে তোলা ছাড়া দ্বিতীয় কোন পথ নেই । 

নেতৃবৃন্দ বলেন , এই অবস্থা আর চলতে দেয়া যায়না । দেশের সর্বত্র পাড়ায় মহল্লায় ধর্ষকদের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছা প্রতিরোধ কমিটি গড়ে তোলার জন্য তাঁরা যুব তরুন নারী পুরুষ সকলের প্রতি আহবান জানান ।