বঙ্গবন্ধু

বঙ্গবন্ধু

আবু মকসুদ

--শৈশবের বাতাবরণ পরে যখন
কৈশোর ফুটতে শুরু করছে,
দেখতে পেলাম বঙ্গবন্ধু অস্পৃশ্য।

তাঁকে কেউ ছুঁতে চায় না,
নাম নেয় না,
তাঁর নামে হাজির হয় না।

সবাই বেমালুম ভুলে গেছে,
ছিলেন কোন চিহ্ন নেই,
যেনো পুরোপুরি গায়েব।

যখন তিনি নিখোঁজ
ছিলেন, আমরা 
খুঁজে পেয়েছিলাম। আলোর

উৎস হয়ে ধরা দিয়েছিলেন।
ঘোর অন্ধকার কালে 
তাঁর সন্ধান নিজেদের চিনতে

সহায়ক হয়েছিল। জ্বি না, কোন
লোভ লালায়িত করেনি
কোন বিনিময় চাইনি।

তাঁকে সম্মুখে রেখে পথ হেঁটেছিলাম
তিনি ছিলেন নির্দেশক
কখনো অনুসরণ ছাড়ি নি।

তাঁকে আশ্রয় করে এ পর্যন্ত এসেছি
বাকি পথে থাকবেন
সঙ্গে করে গন্তব্যে পৌঁছাব। 

আজ যারা তাঁকে চেন দাবি কর,
যারা মচ্ছবে মাত, 
চিৎকার করে গলার রগ 

ছিঁড়ে ফেলেছ। তোমরাই প্রকৃত 
প্রেমিক! আমরা বাতিল মাল!
তাঁর নাম উচ্চারণে  

অধিকার নেই! হে নব্য প্রেমিক
তোমরা পুনরায় ভুলে যাবে 
আমরা বাঁচিয়ে রাখবো।

এতদিন যেমন রেখেছিলাম 
পুনরায় অন্ধকারে এলে, 
তোমরা গর্তে লুকাবে 
আমরা বক্ষ উন্মুক্ত করে 
তাঁর ছবি দেখাব।