মন বালকের কাছে খোলা চিঠি-০৯

মন বালকের কাছে খোলা চিঠি-০৯

খায়রূননেছা রিমি

প্রিয় মনবালক,

কেমন আছো তুমি?ভেবেছিলাম আমি তোমাকে ভুলে গিয়েছি।ইদানীং প্রচণ্ড রকম ব্যস্ত সময় কাটছে।তোমাকে মনে করারই ফুরসত পাই না।

তাই তোমাকে না ভুলে কি উপায় আছে? আমি ধরেই নিয়েছিলাম আমি তোমাকে ভুলে গিয়েছি।স্বপ্ন মাঝে তোমার উষ্ণ আলিঙ্গন আবার আমাকে তোমাকে মনে করিয়ে দিল।

কিছু ভালো লাগা খুব সহজে ভোলা যায় না।তাই হয়তো বার বার ভুলে যাওয়ার পরেও মনের দেয়ালে পুরনো ক্যালেন্ডার হয়ে ঝুলে আছো।

সেই ক্যালেন্ডারই আমাকে মনে করিয়ে দেয় তোমার সাথে আমার প্রথম পরিচয়ের দিনটা।

আহা কি সুখকর সেই স্মৃতি!তুমি হয়তো আজ সবই ভুলে গেছো,ঠিক আমারই মতো।যখনই তোমাকে স্বপ্নে দেখি তখনই আমি তোমাকে মনের আকুতি জানিয়ে একটা করে চিঠি লিখি।অথচ সেই চিঠি কখনই তোমার হাতে পৌঁছে না।পৌঁছবে কি করে?

আমি তো সেই চিঠি কখনই তোমার কাছে পৌঁছানোর ব্যবস্থাই করিনি।হয়তো করবোও না কোনোদিন। 

কিছু ভালো লাগা কখনই প্রকাশ করতে হয় না।মনের গহীনে যত্ন করে রেখে দিতে হয়।আমিও যত্ন করে তা রেখে দেই। কখনই তোমার কাছে তা প্রকাশ করার চেষ্টাই করি না।

আচ্ছা, আমি যে প্রতিনিয়ত তোমায় স্বপ্নে দেখি,তুমি যে মাঝে মাঝেই স্বপ্ন বালক হয়ে মনের মাঝে উঁকি দাও তুমি কি তা জানো?

কিন্তু দেখো আমি কতটা ভদ্র মেয়ে ভুল করেও তোমার মনের দরজায় উঁকি দেই না।তুমি কেন তবে আমার মনের মাঝে বসতি গড়ছো।কেনইবা আমার মনটাকে তোমার দখলে নিয়ে নিয়েছো?

তোমাকে নিয়ে আজ এই কবিতাটা লিখলাম।জানিনা এই চিঠিটাও তোমার কাছে পৌঁছবে কিনা।এরকম অসংখ্য চিঠি আমি তোমাকে নিয়ে লিখেছি যার একটিও কখনই তোমার হাতে পৌঁছেনি।হয়তো এটিও পৌঁছবে না জানি।তবুও মনে মনেই তোমাকে আমি রোজ একটি করে চিঠি লিখি।আমার যত কবিতা সব তোমাকে নিয়েই।শুধুই তোমাকে নিয়ে।অথচ তুমি তা কখনই বুঝলে না।তোমাকে নিয়ে লেখা আজকের কবিতা-

 শরীর দিয়ে ছুঁই না তোকে

মনবালক তুমি মনের মাঝে

করছো আসা যাওয়া,

তোমার স্মৃতি সকাল বিকাল

করছে আমায় ধাওয়া।

ভুলতে গেলেও যায় না ভোলা

মনের মাঝেই থাকো,

দূরে থেকেও স্বপ্নে এসে

মনের দখল রাখো।

শরীর দিয়ে ছুঁইনা তোকে

মনটা দিয়েই ছুঁই,

মনের ঘরে দখল নিতে

আসিস কেন তুই?

মনপুকুরে খাচ্ছে খাবি

সকল স্মৃতি তোর,

তোর কথাটা ভাবতে গিয়ে

রাতটি হলো ভোর।

এমনি করে যাচ্ছে কেটে 

তুই হারানো দিন,

তোর স্মৃতিটাই মনের মাঝে

থাকুক অমলিন।

ইতি

তোমার মন বালিকা