বৃহস্পতিবার ১ জানুয়ারি, ১৯৭০
গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণের কাকেশ্বর নদী রক্ষায় মানববন্ধন  
১৪ মার্চ, ২০১৯

 

বাংলাভাষী ডেস্ক

শ্রী  চৈতন্যের স্মৃতিবাহী কাকেশ্বর নদী আজ মহাবিপন্ন। সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার একসময়ের বাণিজ্যকেন্দ্র ঢাকাদক্ষিণ বাজারের পাশ দিয়েই প্রবাহিত কাকেশ্বর নদীটিকে আর খালও বলা যায় না । দখল ও দূষণে নদীর চেহারা বদলে গেছে ।এই নদীকে রক্ষা করতে স্থানীয় মানুষের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন প্রয়োজন । গতকাল (১৪ই মার্চ) আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস উপলক্ষ্যে বেসরকারী নদী সংরক্ষক সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), সিলেট শাখার যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত কর্মসুচিতে বক্তারা এ কথা বলেন ।  গোলাপগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে দুপুর ১টায় স্থানীয় নাগরিকদের অংশগ্রহনে কাকেশ্বর নদী দখল ও দূষণমুক্ত করে খননের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করা হয় । মানববন্ধন কর্মসুচি পালন কালে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসাবে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার আব্দুল করিম কিম বলেন, প্রায় শত নদীর সিলেট বিভাগে কাকেশ্বর নদীর মত অনেক নদী আজ মহাবিপন্ন । এইসব নদীতে পুনরায় প্রানের সঞ্চার করা গেলেই সিলেট বিভাগের অনেক সমস্যার সমাধান হবে । এই নদী সম্পর্কে আব্দুল করিম কিম বলেন,  কাকেশ্বর নদী ঢাকাদক্ষিণ বাজার থেকে পূর্বদিকে গিয়ে কুশিয়ারা নদীতে পশ্চিমে দত্তরাইল, খর্দ্দাপাড়া, নিজ ঢাকাদক্ষিণ হয়ে দেওরভাগা নদীতে সংযুক্ত হয়েছে । নদীপথে পূর্বাঞ্চলের মানুষ অর্ধশতাব্দী পূর্বেও বড় বড় বাণিজ্যতরী কুশিয়ারা নদী থেকে মালপত্র নিয়ে এসে ঢাকাদক্ষিণ বাজারে আসতো । বর্তমানে এ নদীতে নৌকাতো দূরের কথা ঠিকমতো পানি চলাচল করতে পারে না। কাকেশ্বর নদীটি ভরাট করে একেরপর এক দোকানকোঠা ও মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে । নদীতে বাজারের সব আবর্জনা ফেলে নদীর চিহ্ন মুছে ফেলার চেষ্টা চলছে ।  স্থানীয় পরিবেশবাদী প্রবীণ সংগঠক আব্দুল লতিফ সরকারের সভাপতিত্বে ও সমাজকর্মী সাংবাদিক রুবেল আহমদের পরিচালনায় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সেক্রেটারি, সিলেট মিররের গোলাপগঞ্জ সংবাদদাতা জাহিদ উদ্দিনের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন পরিবেশ কর্মী বদরুল ইসলাম চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল জলিল, গোলাপগঞ্জ নাগরিক বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি এস এ মালেক, নিরাপদ সড়ক চাই গোলাপগঞ্জ শাখার সভাপতি ইলিয়াছ বিন রিয়াছত, সাংবাদিক চেরাগ আলী, গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সদস্য দেলোয়ার হোসেন মাহমুদ।  বক্তারা বলেন, স্থানীয় কিছু ভুমিখেকো চক্র নদীটি ভরাট করে তাদের দখলে নিয়ে গেছে। অতীতে শুকনা মৌসুমে স্থানীয় কৃষকরা কাকেশ্বর নদী থেকে পানি সেচ করে বোরো চাষ করতো । বর্তমানে নদীটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় বোরো মৌসুমে বোরো চাষ করা সম্ভব হচ্ছে না । নদীটি যে কোন মূল্যে দখলমুক্ত করে খনন করা প্রয়োজন । বক্তারা অতিসত্বর নদীটি দখলমুক্ত ও খননের ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানান।   কর্মসুচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন, গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহিদুর রহমান সুহেদ, গোলাপগঞ্জ পৌর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির কোষাধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, সিলেট ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, মীরগঞ্জ মোজাহিরুল ইসলাম মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ছয়েফ উদ্দিন, গোলাপগঞ্জ পৌর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ, কোষাধ্যক্ষ ফাহাদ হোসাইন, দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক খালেদ হোসেন, বি এইচ জুম্মান, জুবের আহমদ প্রমুখ।  

সম্পাদক : মোঃ ওলিউর রহমান খান প্রকাশক : মোঃ শামীম আহমেদ
ফোন : +44 07490598198 ই-মেইল : news@banglavashi.com
Address: 1 Stoneyard Lane, London E14 0BY, United Kingdom
  কপিরাইট © 2015-2017
banglavashi.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত
বাস্তবায়নে : Engineers IT