বৃহস্পতিবার ১ জানুয়ারি, ১৯৭০
সিলেটে বিদপসীমার উপরে সুরমার পানি, বেড়েছে কুশিয়ারায়ও
২৮ জুন, ২০২০

নিজস্ব প্রতিদেবক :: সিলেটে বেগেই চলেছে নদীগুলোর পানি। রবিবার দুটি পয়েন্টে বিপদসীমা অতিক্রম করেছে সুরমা। এছাড়াও বাড়ছে কুশিয়ারাসহ অন্যান্য নদীর পানির উচ্চতা বাড়ছে। যা শঙ্কা বাড়াচ্ছে বড় আকারের বন্যার।
পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সিলেট কার্যালয় জানিয়েছে, রবিবার বেলা ১২টা পর্যন্ত সুরমা নদীর পানি কানাইঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ৬৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। কাল শনিবার সন্ধ্যা ৬ টায় এ পয়েন্টে বিপদসীমার ৩৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়।
আর সুরমা নদীর পানি রবিবার সিলেট পয়েন্টেও বিপদসীমা অতিক্রম করেছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় পানির উচ্চতা ছিল ১০.৫৪ মিটার। আজ রবিবার বেলা ১২টায় একই সময়ে পানির উচ্চতা দাঁড়িয়েছে ১০.৮১ মিটার। যা বিপদসীমা ১ সেন্টিমিটার উপরে।
কুশিয়ারা নদীর পানির উচ্চতা আমলশিদ পয়েন্টে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ১৪.৮৩ মিটার ছিল। আজ রবিবার বেলা ১২টায় উচ্চতা বেড়ে হয়েছে ১৪.৯৪ মিটার। শেওলা পয়েন্টে কুশিয়ারার পানির উচ্চতা শনিবার সন্ধ্যায় ছিল ১২.১৫ মিটার। রবিবার বেলা ১২টায় উচ্চতা বেড়ে হয়েছে ১২.৩৩ মিটার। শেরপুর পয়েন্টে কুশিয়ারার পানির উচ্চতা কাল ছিল ৭.৬৩ মিটার, আজ বেলা ১২টায় হয়েছে ৭.৭৩ মিটার।
সুরমা-কুশিয়ারায় পানি বাড়লেও কিছুটা কমেছে সারি ও লোভা নদীর পানি। শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় সারি নদীর পানি সারিঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ১৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। আজ বেলা ১২টায় পানি বিপদসীমার নিচে নেমে এসেছে। প্রবাহিত হচ্ছে বিপদসীমার ৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে।
এদিকে, কানাইঘাটের লোভা নদীর পানি গতকালের ১৫.০০ মিটার থেকে কমে আজ দুপুরে দাঁড়িয়েছে ১৪.৭৮ মিটার। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, নদীর পানি বাড়তে থাকায় সিলেটের জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কানাইঘাট উপজেলার নিম্নাঞ্চল ইতিমধ্যে প্লাবিত হয়েছে। সিলেটের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, রবিবার বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। ফলে নদীর পানি বাড়তে পারে।

সম্পাদক : মোঃ ওলিউর রহমান খান প্রকাশক : মোঃ শামীম আহমেদ
ফোন : +44 07490598198 ই-মেইল : news@banglavashi.com
Address: 1 Stoneyard Lane, London E14 0BY, United Kingdom
  কপিরাইট © 2015-2017
banglavashi.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত
বাস্তবায়নে : Engineers IT